Pages

Wednesday, 13 August 2014

বাগান ,কলকারখানার পর আইটি সেক্টরেও মৃত্যুমিছিল?আত্মঘাতী বাঙালি?

বাগান ,কলকারখানার পর আইটি সেক্টরেও মৃত্যুমিছিল?আত্মঘাতী বাঙালি?
পলাশ বিশ্বাস
বেশ কিছুদিন আগে সুরের সম্রাজ্ঞী আশা ভোঁসলে একটি চমকপ্রদ সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন যে ভবিষত প্রজন্মের কোনো ভবিষত নেই
আইটে সর্বস্বান্ত দেশের ভবিষত
তিনি বলেছেন যাদের হাতে কম্প্যুটার,যারা কম্প্যুটার নিয়েই আছে তাঁরা ভবিষতে কিছুই করবে না
হিন্দীতে একটি দীর্ঘ লেখা লিখেছিলাম তখন
আউটসোর্সিং নির্ভর আইটিতে মন্দা চলছে,সব্বাই বলছেন
কিন্তি অটোমেশনে আইটিতে সাঢ়ে ষোলো আনা সর্বনাশ
রাতদিন সর্বক্ষনের ঙায়ার ফাযার চোখ কপালে মাইনের ঝাঁচ্যাক দিন ফুরিয়ে এসেছে
ভারতে উন্নয়নের দশ দিগন্ত কিন্তু আইটি নির্ভর
সেজ,হাব,ইন্ডাস্ট্রিয়্যাল করিডোর,স্মার্টসিটি থেকে বুলেট হীরক চতুর্ভুজে আইটি সর্বস্ব পিপিপি মডেল,তাণর পরই ডলারসংযুক্ত অর্থব্যবস্থা ভর করে আছে
ডলার একাধিপাত্যেরই রাজকার্যচলছে ধর্মোন্মাদী পদ্মপ্রলয়ন্কারি
তথ্যপ্রযুক্তির নামে আইটিতে সর্বব্যাপী ট্যাক্স হোলিডে
আবার আইটি নির্ভর বায়োমেট্রিক ডিজিটাল নাগরিকত্ব দেশ
গত পনেরো বছরে হাইস্কুল উচ্চমাধ্যমিকের পর ছাত্র ছাত্রীরা আইটি ছাঢ়া অন্যকিছু পড়ছেই না
সবাই কিন্তু বেসু,যাদবপুর,আইআইঠটি কিংবা আইএসাএমে পড়ছেন না
পাড়ায় পাড়াযপ্লেসমেন্ট নিশ্চিত বলে রমরমা আইটি কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয়,কোচিংএর
সরকারি নজরদারি নেই
বিনিযন্ত্রিত বিনিয়মিত আইটিতে কোটি কোটি ছেলে মেয়েদের ভবিষত

অথচ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসিংএর মধ্যে সুপার দক্ষ একটি আইটি ফাইন্যাল ইয়ারের ছাত্র ক্যাম্পাসিংএ যোগ দেবার পর হোস্টেলের ঘরে গিয়ে আত্মহত্যা করল,বড় বড় কাগজগুলি খবর পর্যন্ত করল না
বাঙালি ইলিশ ভাতের গন্ধে পুজো কার্ণিভালের প্রস্তুতিতে নিমগ্ন
সাধে কি বিখ্যাত বাঙাল স্যার নিরোদ সি টৌধুরি বলেছেনঃ
আত্মঘাতী বাঙালি

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ভারতবর্ষের গর্ব
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় তথ্যপ্রযুক্তির তীর্থস্থান

বিশ্ববিদ্যালয়ের সল্টলেক ক্যাম্পাসের হস্টেলের ঘর থেকে এক ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল। আইটি ফাইনাল ইয়ারের ওই ছাত্রের নাম মণীশ রঞ্জন। তাঁর বাড়ি বোকারোতে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর। মঙ্গলবার দুপুর দু'টো নাগাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের হস্টেল থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন। যদিও মৃতের সহপাঠীদের দাবি, পছন্দমতো চাকরি না পেয়ে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন মণীশ। এদিনই বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসিং চলছিল। এদিনের ক্যাম্পাসিংয়ে মণীশ যোগ দিয়েছিলেন কী না, তা নিয়ে মুখ খোলেননি রেজিস্ট্রার প্রদীপকুমার ঘোষ।

রেজিস্ট্রার এদিন বলেন, 'আমরা যখনই ঘটনার খবর পাই, তখনই পুলিশকে জানাই। এর থেকে বেশি আর কিছু বলা সম্ভব নয়। তদন্তের অগ্রগতির খবর আমরা জানাতে পারলে সংবাদমাধ্যমকে জানাব।'

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন। যদিও মৃতের সহপাঠীদের দাবি, পছন্দমতো চাকরি না পেয়ে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন মণীশ। এদিনই বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসিং চলছিল। এদিনের ক্যাম্পাসিংয়ে মণীশ যোগ দিয়েছিলেন কী না, তা নিয়ে মুখ খোলেননি রেজিস্ট্রার প্রদীপকুমার ঘোষ।

রেজিস্ট্রার এদিন বলেন, 'আমরা যখনই ঘটনার খবর পাই, তখনই পুলিশকে জানাই। এর থেকে বেশি আর কিছু বলা সম্ভব নয়। তদন্তের অগ্রগতির খবর আমরা জানাতে পারলে সংবাদমাধ্যমকে জানাব।'

সেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের হস্টেলে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক পড়ুয়া। মৃতের নাম মণীশ রঞ্জন। মঙ্গলবার দুপুরে তাঁর ঝুলন্ত শব উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ জানায়, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সেকেন্ড ক্যাম্পাস অর্থাৎ সল্ট লেক ক্যাম্পাসের ইনফর্মেশন টেকনোলজি বিভাগের ওই পড়ুয়া কয়েকদিন ধরে খুবই হতাশ ছিলেন। ফাইনাল ইয়ারে পড়ছিলেন তিনি। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব একটা চাকরি জোগাড় করতে হবে, এটা বলতেন বন্ধুদের। প্রথমে আমাজন ও পরে মাইক্রোসফট এসেছিল ক্যাম্পাসিংয়ের মাধ্যমে নিয়োগ করতে। কিন্তু দু'টি কোম্পানির কেউই বাছাই করেনি মণীশ রঞ্জনকে। এতে তিনি মানসিকভাবে আরও ভেঙে পড়েন। মঙ্গলবার দুপুরে হস্টেলে নিজের ঘরে এসে দরজা বন্ধ করে দেন। পরে সহপাঠীরা এসে তাঁকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে শব উদ্ধার করে।

ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ হস্টেলে, উঠছে নানা প্রশ্ন
|এক ছাত্রের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়াল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় (সল্টলেক) ক্যাম্পাসে৷ মঙ্গলবার দুপুরে ক্যাম্পাস ইন্টারভিউ দিয়ে হস্টেলে নিজের ঘরে ফেরার পরেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে অনুমান৷

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসে অস্বাভাবিক মৃত্যু ছাত্রের

কলকাতা: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসে অস্বাভাবিক মৃত্যু হল তথ্যপ্রযুক্তি  বিভাগের ফাইনাল ইয়ারের এক ছাত্রের। পুলিসের অনুমান, আত্মহত্যা করেছেন ওই ছাত্র।  বিহারের বাসিন্দা ওই ছাত্রের নাম মনীশ রঞ্জন। আজ দুপুরে হস্টেলের ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁর দেহ দেখতে পান তাঁর সহপাঠীরা।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছয় বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিস। স্থানীয় একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়ার পর  ওই ছাত্রকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিত্‍সকেরা।

Related Stories

অস্বাভাবিক মৃত্যু জিয়া খানের

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলে ছাত্রের অস্বাভাবিক মৃত্যু

সাউথ পয়েন্ট স্কুলে প্রথম শ্রেণির ছাত্রের অস্বাভাবিক মৃত্যু

কিন্তু কেন আত্মঘাতী হতে গেলেন ফাইনাল ইয়ারের এই ছাত্র ? বিশেষ করে তথ্যপ্রযুক্তির মতো সবচেয়ে সম্ভবনাময় বিভাগের একজন ছাত্র কেন এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাবেন ?  সহপাঠীদের একাংশ জানিয়েছেন, চাকরি নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে হতাশায় ভুগছিলেন মণীশ রঞ্জন। অন্য কয়েকজন সহপাঠীর বক্তব্য, শুক্রবার ইন্টারভিউতে সফল হতে পারেননি মণীশ রঞ্জন। তবে এদিন প্রথম সারির একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় ইন্টারভিউতে প্রথম ধাপে সফল হয়েছেন তিনি।  তারপরেও কেন তাঁর এই পরিণতি, তা বুঝতে পারছেন না শোকস্তব্ধ সহপাঠীরা।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয
Jadavpur University

স্থাপিত
১৯০৬:জাতীয় শিক্ষা পর্ষদ
১৯৫৫:যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়
ধরন
সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
আচার্য
রাজ্যপাল, পশ্চিমবঙ্গ
উপাচার্য
অধ্যাপক শৌভিক ভট্টাচার্য্য
অ্যাকাডেমিক স্টাফ
৮৫০ (প্রায়)
অস্নাতক
৫০০০ (প্রায়)
স্নাতকোত্তর
৪০০০ (প্রায়)
অবস্থান
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
ক্যাম্পাস
যাদবপুর (নগরাঞ্চলীয় ; ৫৮ একর)
বিধাননগর (শহরতলীয়; ২৬ একর)
অনুমোদন
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন
ডাকনাম
যা.বি. (JU)
ওয়েবসাইট
http://www.jadavpur.edu/
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় (ইংরেজি: Jadavpur University) পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার অন্যতম প্রধান বিশ্ববিদ্যালয় তথা ভারতের একটি অগ্রণী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দক্ষিণ কলকাতারযাদবপুরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষাপ্রাঙ্গনটি অবস্থিত। দ্বিতীয় নবনির্মিত শিক্ষাপ্রাঙ্গনটি চালু হয়েছে কলকাতার পার্শ্ববর্তী বিধাননগরে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য কালটিভেশন অফ সায়েন্স ও সেন্ট্রাল গ্লাস অ্যান্ড সেরামিকস রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এর মতো অগ্রণী গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত।
পরিচ্ছেদসমূহ
 [আড়ালে রাখো]
১ অবস্থান
২ ইতিহাস
৩ প্রাঙ্গন
৪ খ্যাতনামা শিক্ষক
৫ বহিঃসংযোগ
৬ আরও দেখুন
অবস্থান[সম্পাদনা]
বিশ্ববিদ্যালয়টি রাজ্য সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত এবং এর প্রধান ক্যাম্পাস যাদবপুর-এ অবস্থিত।এটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতা শহরে অবস্থিত।
ইতিহাস[সম্পাদনা]
মূল নিবন্ধ: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস
প্রাঙ্গন[সম্পাদনা]
খ্যাতনামা শিক্ষক[সম্পাদনা]
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতনামা বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষকদের মধ্যে রয়েছেন -
অমর্ত্য সেন (অর্থনীতি)
বুদ্ধদেব বসু (তুলনামূলক সাহিত্য)
অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত (তুলনামূলক সাহিত্য)
শঙ্খ ঘোষ (বাংলা)
নবনীতা দেবসেন (তুলনামূলক সাহিত্য)
পরিতোষ সেন


ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি নিয়ে সরকার-আপাইয়ের তরজা
|রাজ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়া ভর্তির বেহাল দশা নিয়ে সরকার ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের চাপানউতোর শুরু হয়েছে৷ রাজ্যের ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৪০ হাজার আসনের মধ্যে ৬৫ শতাংশই শূন্য রয়ে গিয়েছে৷

কাউন্সিলরের মেয়ের ঝুলন্ত দেহ, আরও দুই আত্মহত্যা মহানগরে
| এই সময়: সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত শহরের তিন প্রান্তে তিনটি পৃথক অপমৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে৷ এর মধ্যে আমহার্স্ট স্ট্রিটে এক যুবতীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে মঙ্গলবার দুপুরে উত্তেজনা ছড়ায়৷